ভারতের অর্থনৈতিক উন্নয়নে সোনালী চতুর্ভুজ এর অবদান আলোচনা করো।

Photo of author

Follow G-News

অন্যদের শেয়ার করুন

Discuss the contribution of the Golden Quadrilateral to India’s economic development. (ভারতের অর্থনৈতিক উন্নয়নে সোনালী চতুর্ভুজ এর অবদান আলোচনা করো।) [Marks: 05]

ভূমিকা: সোনালী চতুর্ভুজ বলতে বোঝায়, যে সড়ক পথ দ্বারা ভারতের চারটি মেট্রোপলিটন শহরকে (দিল্লি, মুম্বাই, চেন্নাই ও কলকাতা) সংযুক্ত করা হয়। এর মোট দৈর্ঘ্য ৫,৮৪৬ কিমি, যার মধ্যে দিল্লি থেকে কলকাতা ১৪৫৩ কিমি, চেন্নাই থেকে মুম্বাই ১২৯০ কিমি, কলকাতা থেকে চেন্নাই ১৬৮৪ কিমি, মুম্বাই থেকে দিল্লি ১৪১৯ কিমি দীর্ঘ। সোনালী চতুর্ভুজ ভারতের একটি স্মৃতিসৌধ পরিকাঠামো প্রকল্প যা ভারতের অর্থনৈতিক প্রেক্ষাপট গঠনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে। সোনালী চতুর্ভুজ দেশের চারটি প্রধান মেট্রোপলিটন শহর- দিল্লি, কলকাতা, মুম্বাই এবং চেন্নাইকে সংযুক্ত করে, এটি শুধুমাত্র মানুষের দ্রুত চলাচলকেই নয়, বিশাল দূরত্ব জুড়ে পণ্যের দক্ষ পরিবহণকেও সহজ করেছে। সোনালী চতুর্ভুজ কিভাবে ভারতের অর্থনৈতি এর ওপর প্রভাব ফেলছে তা নিচে আলোচনা করা হল।

নিয়মিত আপডেট পেতে Follow Now

প্রায় 5,800 কিলোমিটার বিস্তৃত, ভারতের দীর্ঘতম মহাসড়ক প্রকল্প এবং বিশ্বের পঞ্চম দীর্ঘতম প্রকল্প। প্রধান শিল্প, কৃষি ও সাংস্কৃতিক কেন্দ্রগুলিকে সংযুক্ত করে, এটি প্রধান শহরগুলির মধ্যে ভ্রমণের সময়কে উল্লেখযোগ্যভাবে হ্রাস করেছে, যার ফলে পণ্য ও মানুষের মসৃণ ও দ্রুত চলাচল সহজ হয়েছে। এই বর্ধিত সংযোগ পণ্যের নিরবচ্ছিন্ন পরিবহনের দিকে পরিচালিত করেছে, যা সরবরাহ শৃঙ্খলা এবং লজিস্টিক সেক্টরের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

আরও পড়ুন:  ভারতের প্রধানমন্ত্রীর তালিকা 2024 PDF | List of Prime Minister of India 2024

সোনালী চতুর্ভুজ যে অঞ্চলগুলির ওপর দিয়ে অতিক্রম করেছে সেখানে যথেষ্ট বিনিয়োগ আকর্ষণ করেছে। এই পথে শিল্প করিডোর গড়ে উঠেছে, যার ফলে উৎপাদন ইউনিট, পরিষেবা শিল্প এবং লজিস্টিক হাব স্থাপন করা হয়েছে। এই উন্নয়নগুলি কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি করেছে, স্থানীয় অর্থনীতিকে উন্নীত করেছে এবং দেশের সামগ্রিক শিল্পায়নে অবদান রেখেছে।

কৃষি ক্ষেত্রের মধ্যেও সোনালী চতুর্ভুজ এর অবদান অস্বীকার করা যায় না। এটি কৃষকদের তাদের উৎপাদিত পণ্য আরও দক্ষতার সাথে বাজারে পরিবহনে সক্ষম করেছে, ক্ষতি হ্রাস করেছে এবং আরও ভাল দাম নিশ্চিত করেছে। জাতীয় ও আন্তর্জাতিক বাজারে প্রবেশাধিকার কৃষকদের ফসলের বৈচিত্র্য এবং আধুনিক কৃষি কৌশল গ্রহণ করতে উৎসাহিত করেছে।

ভারত জুড়ে ঐতিহাসিক ও সাংস্কৃতিক স্থানগুলিতে প্রবেশাধিকার উন্নত করে পর্যটনের প্রচারেও সোনালী চতুর্ভুজ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। এটি কেবল সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য সংরক্ষণে নয়, ঐক্য ও জাতীয় পরিচয়ের বোধ গড়ে তুলতে সহায়তা করেছে।

আরও পড়ুন:  Civil Courts Recruitment: কোর্টে একাধিক শূন্যপদে Assistants ও ক্লার্ক নিয়োগ, আবেদন এর শেষ তারিখ ৯ মে

এই সড়কপথ প্রকল্পটি তার পথে অর্থনৈতিক উন্নয়নকে ত্বরান্বিত করেছে, বিশেষ করে যেসব অঞ্চলে আগে পরিকাঠামো কম ছিল। মহাসড়ক পথ নির্মাণের ফলে কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি হয়েছে, স্থানীয় ব্যবসা বৃদ্ধি পেয়েছে এবং গুদামজাতকরণ, কোল্ড স্টোরেজ সুবিধা এবং শিল্প পার্কের মতো আনুষঙ্গিক পরিকাঠামোতে বিনিয়োগ আকৃষ্ট হয়েছে। এর ফলে শহরাঞ্চল ও গ্রামাঞ্চলের মধ্যে বৈষম্য হ্রাস পেয়ে আরও ভারসাম্যপূর্ণ আঞ্চলিক উন্নয়ন হয়েছে।

উপসংহার: পরিশেষে, সোনালী চতুর্ভুজ শুধুমাত্র একটি সড়ক পথ নয়, এটি ভারতের অর্থনৈতিক উচ্চাকাঙ্ক্ষার মেরুদণ্ড। এটি ভারতের ভ্রমণ ও বাণিজ্যের পদ্ধতিতে বৈপ্লবিক পরিবর্তন এনেছে, যা দেশের আর্থ-সামাজিক প্রেক্ষাপটে গভীর প্রভাব ফেলেছে। ভারতের ক্রমবর্ধমান বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে, সোনালী চতুর্ভুজ নিঃসন্দেহে তার উন্নয়নের গল্পের একটি ভিত্তি হয়ে থাকবে, যা আগামী বছরগুলিতে অগ্রগতি এবং সমৃদ্ধিকে চালিত করবে।

WBEG

Leave a Comment

error: Content is protected !!